ঢাকারবিবার , ১০ মার্চ ২০২৪
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

মুক্তির সংগ্রাম

সেঁজুতি মুমু
মার্চ ১০, ২০২৪ ১০:২৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সেঁজুতি মুমু:

রাত্রি ঘন হয়ে এসেছে, নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়া, দালানের ছাদে সিলিং ফ্যান ঘুরছে, নরম তোষকের উপর সুন্দর চাদর পাতা, তারউপর আরামে শুয়ে তনু নকশিকাঁথায় মুড়িয়ে নিয়ে নিদ্রা দেবীর আগমণের অপেক্ষা চলমান৷
অথচ নিদ্রা দেবীর আগমণের নাম নেই, অসহ্যকর কতগুলো ভাবনা না চাইতেও মাথায় কেঁচোর দলের মতো কিলবিল করছে।
অনিচ্ছাকৃত এসব ভাবনা থামার নাম নেই এইদিকে রাত পার হচ্ছে নির্ঘুম।
হঠাৎ কে যেন কানের কাছে বলে উঠলেন, “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম,
এবারের সংগ্রাম আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রাম।”
মস্তিষ্কের ভেতর স্নায়ু কেঁপে উঠল, বুঝলাম এবার আত্মমুক্তির সংগ্রামে প্রস্তুত হতে হবে।

নয়ন যুগলে আকাশসম স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সুর,
আত্মপ্রতিষ্ঠার তৃষ্ণা তাকে তৃষ্ণিত করছে, সে অমৃতের অনেক নিকটে, এমন সময় নিষ্ঠুর পরিবার তার স্বপ্ন ছিনিয়ে নিয়ে তাকে বিয়ে দিয়ে দিলো এক মান্ধাতার আমলের চিন্তাধারা সম্পন্ন ব্যক্তির সাথে, সুরের লেখাপড়া বন্ধ হলো, কোটি কোটি অশ্রুপাত করেও কোনো লাভ হলো না।
বিষন্ন মনে নিরবে বসে আছে সুর৷
হঠাৎ কে যেন কানের কাছে এসে উচ্চারণ করলেন মহামন্ত্র, “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রাম। “

সারা গাত্র কেঁপে উঠল সেই মন্ত্র শুনে।
সুর বুঝে গেল তাকে পরাধীনতার জাল ছিড়ে আত্মপ্রতিষ্ঠার স্বাধীন যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে!
শারীরিক প্রতিবন্ধী আমাদের পাড়ার আসিফ, নেই তার পদযুগল, নেই হস্তযুগল, আছে শুধু হাতের জায়গায় এক অর্ধ অংশ আর তার সামনে দুটি আঙ্গুল।
জন্মের পর থেকে তাচ্ছিল্য শুনতে শুনতে ক্লান্ত আসিফের নয়নে জীবন যুদ্ধ বিজয়ের তীব্র বাসনা।
দুচোখ ভরা স্বপ্ন, আত্মবিশ্বাস আর হস্তের অপূর্ণ অংশ নিয়ে দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে আসিফ।
কিন্তু পারিপার্শ্বিক পরিবেশ, মানুষের করা অপমান একটু একটু করে শেষ করে দিয়েছে আসিফকে।
সব ছেড়ে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সে।
নদীর তীরে দাড়িয়ে জীবনটাকে নদীর গর্ভে জলাঞ্জলি দিতে প্রস্তুত আসিফ।
এমন সময় এক বাউল গাইলেন এক অনন্য সংগীত, “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রাম! “
সেই গান শুনে আসিফের শরীরে রক্তের স্রোতে যেন হঠাৎ করে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হলো।
সে বুঝলো এবার তাকে করতে হবে এক মহা সংগ্রাম, সুন্দর ভাবে বাঁচার লড়াই।
নদীর তীর থেকে বা মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এল আসিফ।

যুগে যুগে কত না আসিফ, সুর আরও কতকে এই “মুক্তির সংগ্রাম”  গান কিংবা মহামন্ত্র শুনে এগিয়ে চলেছে জীবন যুদ্ধে, ঠিক যেভাবে আজ থেকে কয়েক দশক আগে পূর্ব পাকিস্তানের মানুষ স্বাধীন বাংলাদেশ গঠনের, পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে স্বাধীনতার সংগ্রামে আত্মনিয়োগ করেছিল।
আজও পদে পদে পরাধীন হলে, অত্যাচারিত হলে কানের কাছে বেজে উঠে সেই ‘মুক্তির সংগ্রাম” মহামন্ত্র!
Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial