ঢাকাশনিবার , ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

মানবতার ক্রন্দন

মৃধা প্রকাশনী
ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২৪ ৩:০২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

মানবতা একটি চমৎকার শব্দ। এর মধ্যে মাত্র চারটি অক্ষর, মা-ন-ব-তা। শব্দটি লেখা অনেক সহজ। বলা ও অনেক সহজ।কিন্তু হৃদয় দিয়ে অনুধাবন করা খুবই কঠিন। কারণ কি? কারণটা তেমন কিছু নয়। কারণ একটা আমরা অনুধাবন শক্তি হারিয়ে ফেলেছি। মানবতা আজ কাঁদছে। ক্ষণে ক্ষণে চিৎকার করে কাঁদছে। আপনি কি সে ক্রন্দন শুনতে পান? অবশ্যই না। কারণ আপনি কখনো শুনার চেষ্টাও করেন নাই।যদি আপনি শুনতেন নীর থাকতে পারতেন না। তেজদীপ্ত কন্ঠে জাগ্রত হতেন। বাধার প্রাচীর ভেঙ্গে রক্ত মাখা হাতে সমস্ত জাতিকে জাগাতেন। অথচ আপনি এখনো ঘুমন্ত। কারণ মানবতার ক্রন্দন ধ্বনি আপনার কর্ণকুহুরপ প্রবেশ করেনি।অনুধাবন করতে পারেননি হৃদয় প্রান্তে। মানবতা নিয়ে অনেক লেখক অনেক গ্রন্ত রচনা করেছেন। অনেক কবি কাব্য রচনা করেছেন।অনেক বক্তা স্টেজ গরম করে যাচ্ছেন। লক্ষ জনতা চিৎকার করে গলা ফাটিয়ে যাচ্ছে। তাই মানবতা নিয়ে নতুন কোন ব্যাখ্যা লিখতে চাচ্ছিনা। এতটুকু বলতে চাই, পৃথিবীতে মানব সমাজের বিবেক কি আজ ঘুমিয়ে গেছে? মানুষ কি তার মনুষ্যত্ব হারিয়ে ফেলেছে? একটা মানুষের ভিতরে কই একটি মূল্যবান বস্তু আছে। তার মধ্যে শ্রেষ্ঠ হচ্ছে তিনটি, বিবেক, মানবতা, মনুষ্যত্ব। আজ সারা বিশ্বে মানুষ তাদের ভিতরের এই তিনটি বস্তু হারিয়ে ফেলেছে। তাইতো এক মানুষ অন্য মানুষের উপর নিষ্ঠুর নির্মম পশুর মতো হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে। আজ বিশ্বের মানুষকে মানবতার সংজ্ঞা গিলেয়ে গুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু ফল শূন্য। কারণ জাতিকে মানবতার সংজ্ঞা শিখিয়ে কোন লাভ হবে না। মানবতার ক্রন্দন ধ্বনি শুনিয়ে দিন। দেখবেন ঘুমন্ত মানুষ লাফিয়ে উঠবে। অস্ত্র হাতে ঝাপিয়ে পরবে। যাদি শ্রবণে কাজ না হয়, অসহায় মানবতার এক বিষাদময়ী ছবি চোখের সামনে তুলে ধরেন। তখন সকল মানুষের বিবেক প্রকম্পিত হবে।নিজেদের মধ্যে মরে যাওয়া মানবতা ফুটে উঠবে। কিন্তু সেটা কি সম্ভব? আজ মানুষ অন্ধ নয়। সকলের হাতে মিডিয়ার অবস্থান। একবার চোখাবুলিয়ে দেখেন বিশ্ব মানবতার তপ্ত খুন। শুধু দেখে ক্ষান্ত থাকবেন না। অনুধাবন করার চেষ্টা করেন। আজ যারা পৃথিবীর বুকে শান্তির প্রসাদ তৈরীতে ব্যস্ত তারাই আবার মানবতার বুকে চাকু মারছে।তাদের মুখে একটিই বাণী মুসলিম সন্ত্রাস হুজুররা জঙ্গি মৌলবাদি। কিন্তু হাস্যকর হলেও সত্য যে, সন্ত্রাস দমনের নামে তারা নিজেরাই সন্ত্রাসীর ইতিহাস গড়ছে। অনেকে বলে এটা ধর্মগত বিভেদ, জাতিগত বিভেদ। যদি তাই হয়, এই বিভেদ গুলো বাদ দিলাম। পূর্বের ইতিহাস বাদ দিলাম। কিন্তু একটা জিনিসতো বাদ দেওয়া যায়না। মানবতা।মানবতাতো কারো ধর্মের বাবার সম্পদ নয়। মানবতা সবার মাঝে আছে। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে সেই মানবতা আজ কোথায়? মানব জাতি আজ মানবতাহীন পশুতে পরিণত হয়েছে। চারদিক থেকে অসহায় মানবতার চিৎকার ধ্বনি প্রতিধ্বনি হচ্ছে। অথচ সেই মানবতাকে রক্ষা করতে কেউ এগিয়ে আচ্ছে না।কারণ কারো মাঝে সুস্থ মানবতার স্থান নেই।তাই নিজের মানবতাকে জাগ্রত করুন। মানবতাকে রক্ষা করতে নতুন উদ্যমে জাগোন!!!!!

 

 

জাহেদুল ইসলাম আল রাইয়ান
আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়
কায়রো, মিশর

Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial