ঢাকাবুধবার , ১০ জানুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

আড়ালে থেকেই ক্যারিয়ার শেষ ইমরান খানের!

জুবায়ের আহমেদ
জানুয়ারি ১০, ২০২৪ ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ইমরান খান, নামটি মুখে নিলেই সবার আগে পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক, তৎপর রাষ্ট্রপ্রধান অথবা ভারতীয় নায়ক ইমরান খানের কথা মনে পড়তে পারে সকলের। তবে এই দুজনের বাহিরে আরো একজন ইমরান খান আইসিসি স্বীকৃত ক্রিকেটে দীর্ঘ ১৮ বছর ধাপিয়ে বেড়িয়েছেন, কিন্তু জাতীয় দলের হয়ে খেলতে না পারায় আড়ালেই থেকেছেন ক্যারিয়ার জুড়ে।

বলছি, উইন্ডিজ ঘরোয়া ক্রিকেটের কিংবদন্তী লেগস্পিন অলরাউন্ডার ইমরান খানের কথা। ১৯৮৪ সালের ৬ জুলাই কিংবদন্তী ব্রায়ার্ন লারার দেশ ত্রিনিদাদের পোর্ট অব স্পেইনে জন্মনেয়া এই ক্রিকেটার ২০০৫ সালে ত্রিনিদাদের হয়ে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক হয়।

২০০৫-২৩ অর্থাৎ দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত ১১৩টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ খেলে ইনিংসে ২৫ বার ৫ উইকেট ও ম্যাচে ৬ বার ১০ উইকেট এবং ইনিংসে সর্বোচ্চ ৭ উইকেট সহ ৪৫০ উইকেট শিকার করেছেন। ব্যাট হাতে ১ সেঞ্চুরী ও ১৫ ফিফটিতে ৩৬২২ রান করেছেন।

২০১০ সালে লিষ্ট এ অভিষেকের পর ২০২২ সাল পর্যন্ত ৫৩ ম্যাচ খেলে সর্বোচ্চ ৫ উইকেট সহ ৭১ উইকেট শিকার করেছেন। ১ ফিফটিতে ৩৮১ রান করেন।

ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক টি২০ ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগে একাধিক দলে খেলা এই ক্রিকেটার ৬০টি টি২০ ম্যাচ খেলে ৩৯ ম্যাচ খেলে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট সহ ৩১ উইকেট শিকার করেছেন। ব্যাট হাতে ১ ফিফটিতে ১৫৪ রান করেছেন।

ভারতে অনুষ্ঠিত হওয়া লিজেন্ড লীগের শেষ আসরে মেনিপাল টাইগার্সের হয়ে ৫ ম্যাচ খেলে ৯ উইকেট শিকার করেছেন।

ইমরান খানের ক্যারিয়ার দেখে এটাই প্রতীয়মান হয় লেগস্পিনার হলেও রঙ্গীন পোষাকের তুলনায় সাদা পোষাকের ক্রিকেটেই আলো ছড়িয়েছেন। ফলে দীর্ঘদিনের ক্যারিয়ারের মধ্যে মাত্র ৫৩ লিষ্ট এ ম্যাচ ও ৩৯ টি২০ ম্যাচ খেলেছেন তিনি।

কখনো জাতীয় দলের হয়ে খেলতে না পারলেও উইন্ডিজ এ দলের হয়ে খেলেছেন এই লেগস্পিনার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে লেগস্পিনারদের মূল্য অনেক হলেও ক্যারিবিয়ান এই স্পিনারের ক্যারিয়ার শেষ হয়েছে জাতীয় দলে না খেলার আক্ষেপ নিয়েই।

২০১৭-১৮ সেশনে উইন্ডিজ ক্রিকেটের প্রথম শ্রেণীর লীগে ২য় সর্বোচ্চ ৪৮ উইকেট শিকার করেন ইমরান খান। এছাড়াও বহু ম্যাচে ব্যাটে বলে আলো ছড়ানো পারফর্ম করেছেন। তবুও জাতীয় দলে খেলার সুযোগ হয়নি এই ক্রিকেটারের।

জাতীয় দল যে সোনার হরিণ অনেকের জন্য, তা ইমরান খানের জন্যই নিদারুণ বাস্তবতা। তাঁর সময়ের অনেক ক্রিকেটার জাতীয় দলে খেলা বিশ্বব্যাপী খ্যাতি অর্জন করেছেন। কিংবদন্তী ক্রিকেটারেও পরিণত হয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কিন্তু ইমরান খানের পথচলা শেষ হয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেট, এ দল এবং সিপিএল ক্রিকেট খেলেই।

Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial