ঢাকাশনিবার , ৪ নভেম্বর ২০২৩
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

যন্ত্রে আধুনিক, চিন্তায় সেকেলে

মৃধা প্রকাশনী
নভেম্বর ৪, ২০২৩ ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

 

বর্তমান সমাজে খুব প্রচলিত একটি বিষয় বিশেষ করে তরুণ-তরুণীদের মধ্যে বেশি দেখা যায় সেটি হলো তথাকথিত সম্পর্ক। প্রেম, ভালোবাসা মানুষের জীবনে আসে, এটি স্বর্গীয় একটি বিষয় এবং পবিত্র। কিন্তু মানুষ নানা ভাবে এটিকে কলুষিত করছে। আধুনিক সভ্যতায় আমরা এতটা আধুনিক হয়ে গিয়েছি যে আমাদের সবকিছু এখন যন্ত্রেই নির্ভর এবং এর উপরই আমাদের সমস্ত ভরসা, বিশ্বাস। মানুষ ভুলে গেছে আত্মার বন্ধন ও সম্পর্ক। এখনকার সমাজে প্রেম বলতেই বুঝায় দুজন মানুষ তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পাসওয়ার্ড শেয়ার করবে, ব্যক্তিগত সীমাবদ্ধতা থাকবে না এবং সবকিছু শেয়ার করবে। সম্পর্কে মানুষ জড়ায়, এটি স্বাভাবিক। কিন্তু মানুষ তার একান্ত ব্যক্তিগত এতটুকু জায়গা রাখে না নিজের জন্য, পরিবার এর জন্য, বন্ধুদের জন্য। সবকিছুর একমাত্র নির্ভরতা একটা সম্পর্ক আর প্রেম। এরজন্য সবকিছু কে মনে হয় বিসর্জন দিয়ে দিবে। প্রত্যেক টা মানুষেরই যে একটা আলাদা জায়গা থাকবে, ক্ষেত্র থাকবে এবং থাকবে সীমাবদ্ধতা তা যেন লোকে ভুলেই যায়। দুজন মানুষের একজন কোথায় যায়, কার সাথে মিশছে, কথা বলছে ইত্যাদি ছোট বিষয়েও আসে সীমাবদ্ধতা। সম্পর্ক মানেই ওই একজন মানুষ কে সবসময় সময় দেওয়া, কথা বলা, ফেসবুক আইডি তে নিয়মিত ঘাটাঘাটি করা ইত্যাদি এসবকিছু ভালোবাসা শব্দটিকে একেবারে গৌণ করে ফেলেছে। কবি সাহিত্যিক বা বড় বড় গুণীজন নির্দিষ্ট করে প্রেমের সংজ্ঞায়ন দিয়ে যেতে পারেন নি, এটি মনের একটি বিস্তৃত বিষয়। নির্দিষ্ট যন্ত্রে এর ভিত্তি, বিশ্বাস কে ছেয়ে ফেলা কতটুকু যুক্তিযুক্ত। আসলে এখন মানুষ প্রেম, সম্পর্ক কে সহজলভ্য করে ফেলেছে। বলা বাহুল্য নয় আমরা আধুনিক হয়েছি যন্ত্রে, কিন্তু বিশ্বাস, ভরসা এসব শব্দ এবং এরকম বৃহৎ বিষয় কে যে এরকম ছোট কিছুর উপর ভিত্তি করে এগিয়ে নেওয়া যায় না, সেই সুন্দর চিন্তায় আমরা এখনো সেকেলেই আছি।

তথাকথিত এসব সম্পর্কে সহজেই ভুল বোঝাবুঝি, অবিশ্বাস প্রতারণা ভর করে। ফলে তরুণদের মাঝে হতাশা দেখা যায়। বিধাতার দেওয়া এত সুন্দর একটি জীবন কে তারা শুধু ওই একটি সম্পর্ক আর প্রেম দিয়েই বিচার করে। অথচ এই জীবনের পিছনে বাবা মায়ের কত ত্যাগ, সাধনা, কত স্বপ্ন জড়িয়ে আছে তা মানুষ ভুলে যায়। কিছু দিনের সম্পর্কে এসমস্ত ছোট বিষয় নিয়ে মনোমালিন্য দেখা দেয়, ভাঙন আসে, ছেলে মেয়েরা হতাশ হয়ে আত্মাহুতির সিদ্ধান্ত নেয়। এরকম সিদ্ধান্তের জন্য কত জীবন অকালে ঝরে যাচ্ছে। বাবা মায়ের স্বপ্ন ধূলিসাৎ হয়ে যাচ্ছে। অথচ মানুষের জীবনে ভাঙা গড়া আছে। প্রেম আসবে, যাবে, কিন্তু জীবন থেমে থাকবে না৷ তাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। মনে রাখতে হবে এখনো যেহেতু বেঁচে আছি তার মানে বিধাতার কোনো উদ্দেশ্য আছে এবং সেই পরিকল্পনা অনুযায়ীই আমাদের যেতে হবে বহুদূর। কোনো কিছুর জন্যই জীবন থেমে যায় না, শুধু সময়ের কাজটি আমাদের সময়ে করে যেতে হবে। একদিন এসব তুচ্ছ বিষয় গুলো নিয়ে আমাদের বোধ আসবে। জীবনের খুব সুন্দর অর্জনের সামনে মনে হবে ওগুলো ছিল আশীর্বাদ। ভেঙে পড়ে থেমে থাকি নি সেটার জন্য মনে মনে আনন্দ আসবে।

তাই সম্পর্কে জড়ালেও নিজের ব্যক্তিগত জায়গা টি সুরক্ষিত রাখতে হবে, সবকিছুর সীমাবদ্ধতা আছে, সম্পর্কেরও থাকবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পাসওয়ার্ড, একান্ত ব্যক্তিগত ছবি এবং নিজের জীবনের সাথে জড়িয়ে থাকা পরিবার, ভাই বোন, বন্ধু, আত্মীয় স্বজন সবার জন্য জায়গা থাকবে এবং শুধু মাত্র একটি মানুষের জন্য নিজেকে সবকিছু থেকে বিচ্ছিন্ন করে এক কেন্দ্রিক হয়ে যাওয়া উচিত নয়। নিজের সম্ভাবনার জায়গা গুলো খুঁজতে হবে এবং সর্বোপরি আত্মোন্নয়নের দিকে সবচেয়ে বেশি মনোযোগ দিতে হবে। কারণ নিজের জায়গায় নিজে প্রতিষ্ঠিত এবং নিজের গণ্ডিতে সম্ভাব্য অর্জন টি না করলে শেষ পর্যন্ত কেউ থাকে না৷ তাই নিজের জায়গা টি শক্ত ও মজবুত করে বাস্তববাদী হতে হবে। তাহলেই জীবনের উদ্দেশ্য কে আমরা খুঁজে পাবো, বুঝতে পারবো৷

ইসরাত জাহান সুমনা
শিক্ষার্থী, বাংলা বিভাগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
isratjahansumonadu@gmail.com

Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial