ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২ নভেম্বর ২০২৩
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

বাবার পাঠশালার গল্প 

মৃধা প্রকাশনী
নভেম্বর ২, ২০২৩ ১০:৪২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চায়ের কাপ হাতে জানালার ধারে দাঁড়িয়ে আছেন খালিদ সাহেব। বাহিরে মুষুলধারে বৃষ্টি হচ্ছে । একটু আগেও ঠা ঠা রোধে সব যেন ঝলসে যাচ্ছিল!হঠাৎ করেই কালো মেঘের দল এসে জড়ো হতে শুরু করে আকাশে। মুহূর্তের ব্যবধানেই শুরু হয় বৃষ্টি। এই সময় বামদিকের রাস্তার মোড়ের গলির মাথায় কয়েকটা ছোট ছেলে বৃষ্টিতে ভিজে দুষ্টুমি করছে। হাসাহাসি ও চিৎকার চেচামেচি করছে।ওদের হাসির খিল খিল শব্দ বৃষ্টির শব্দকে ভেদ করে প্রতিধ্বনিত হচ্ছে খালিদ সাহেবের কানে। ওদের বৃষ্টিতে ভেজা ও দুষ্টুমিগুলো দেখে খালিদ সাহেবের স্মৃতিপটে ভেসে উঠছে তার বাল্যকালের এমন দিনগুলি। বৃষ্টিতে ভেজা,পুকুরে দাপাদাপি করে চোখ লাল করে বাড়িতে ফেরা,দল বেঁধে মাঠে খেলতে যাওয়াসহ আরো কত কী! খুব করে ইচ্ছে করছে যদি আবারো সেই বাল্যকালে ফিরে যেতে পারতেন! এই কর্পোরেট জীবন বাদ দিয়ে যদি ফিরে যেতে পারতেন সেই সোনালি শৈশবে!
আনমনে আবৃত্তি করতে লাগলেন
“বেলা শেষে গোধূলি ক্ষণে আনমনে বসে যখন ভাবি একা একা ,
স্মৃতির কপোটে যদি খিল দিয়ে যেতো রাখা —
সেই শৈশবের স্মৃতিগুলো আজো মনে পড়ে ,
ইচ্ছে করে যাদুর কাঠি ঘুরিয়ে —–
ফিরে যাই সেই দুরন্ত কৈশোরে” !! (১)
 হঠাৎ করে পিছন থেকে একটা মিষ্টি শিশু কণ্ঠ ভেসে আসল।
~”আব্বু!
খালিদ সাহেব পিছনে তাকিয়ে দেখেন সদ্য ঘুম থেকে উঠা তার ৯ বছরের ছোট্ট ছেলে আবদুল্লাহ দাঁড়িয়ে আছে। চায়ের কাপটা টেবিলে রেখে আবদুল্লাহকে কোলে নিয়ে আবার এসে দাড়ালেন জানালার ধারে। ছেলেকে উদ্দেশ্য করে বললেন
~”ঘুম কেমন হয়েছে আমার বাবার?
~আলহামদুলিল্লাহ, খুব ভালো হয়েছে । মিষ্টি কণ্ঠে জবাব দিল আবদুল্লাহ
~আব্বু ওরা বৃষ্টিতে ভিজছে কেন? উৎসুক চাহনিতে বাবাকে লক্ষ্য করে পুনরায় জিজ্ঞেস করল আবদুল্লাহ
~”ওরা দুষ্টুমি করে ভিজছে” জবাব বললেন খালিদ সাহেব
~ওওহ,ঐ ছেলেদের মতো আমিও বৃষ্টিতে ভিজতে চাই। প্রফুল্লচিত্তে বলে উঠল আবদুল্লাহ
~কিন্তু এখন ভিজলে আমার বাবাটার জ্বর হতে পারে যে! আমরা অন্যদিন ভিজব ইনশা আল্লাহ । স্নেহমাখা কণ্ঠে বললেন খালিদ সাহেব
~আপনিও আমার সাথে বৃষ্টিতে ভিজবেন?ভ্রূ কুঁচকে জিজ্ঞেস করল আবদুল্লাহ
~খালিদ সাহেব মৃদু হেসে বললেন : হ্যাঁ,আমিও ভিজব কারণ বৃষ্টিতে ভেজাও সুন্নাত (২)
~ “বৃষ্টিতে ভেজাও সুন্নাত? বিস্ময় নিয়ে জিজ্ঞেস করল আবদুল্লাহ।
খালিদ সাহেব একটু মুচকি হেসে বললেন” হ্যাঁ, আমাদের প্রিয় রাসুল (স) বৃষ্টিতে ভিজতেন ।
~আবদুল্লাহ খুশি হয়ে বলল “তাহলে আমরা দুজনই বৃষ্টিতে ভিজব”।
একটু পর আবদুল্লাহ আবার তার বাবাকে জিজ্ঞেস করল।
“আচ্ছা আব্বু,বৃষ্টির সময় কোন দোয়াটা পড়তে হয় আপনি জানেন?”
~ “কোন দোয়াটা যেন! একটু মৃদু হেসে বললেন খালিদ সাহেব।
~ আবদুল্লাহ একটু উচ্চস্বরে বলে উঠল “اللهم صيبا نافعا)(৩) আপনি পারেননি! আপনি পারেননি!”
খালিদ সাহেব একটু মুচকি হেসে বললেন ” আচ্ছা, দোয়াটা আপনাকে কে যেন শিখিয়েছিল?
আবদুল্লাহ তার বাবার মুখের দিকে তাকিয়ে একটা মিষ্টি হাসি দিয়ে বলল
~ “দোয়াটা শিখেয়েছে আমার,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,আব্বু”
বলেই বাবার গলা জড়িয়ে হাসতে শুরু করল। খালিদ সাহেবও আবদুল্লাহকে বুকের সাথে জড়িয়ে আদর করতে লাগলেন।
একটু পর ঘরের মধ্য থেকে একটা কণ্ঠ ভেসে আসল ” এই যে, আজান হয়েছে! বাবা ছেলে নামাজ পড়বেন না?”
~”হ্যাঁ,আসছি”
রেফারেন্স :
১)শৈশবের স্মৃতি
– রুবিনা মজুমদার
২/সহিহ মুসলিম:৮৯৮
৩)সহিহ বুখারী :১০৩২
(হে আল্লাহ,মুষলধারায় উপকারী বৃষ্টি বর্ষণ করুন)
মো.আবদুর রহিম
ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
ই-মেইল : s-15-2020913391@ihc.du.ac.bd
Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial