ঢাকারবিবার , ২২ অক্টোবর ২০২৩
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

লাল ছাতা

মৃধা প্রকাশনী
অক্টোবর ২২, ২০২৩ ১২:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

অনুবাদ: ফেরদাউস হাসান
বাইরে ঝুম বৃষ্টি। শীতের দেশে বৃষ্টি বিলাস হয় না। মাঝেমধ্যেই এমন বৃষ্টি নামছে আজকাল। সময়টা অবশ্য বৃষ্টির-ই। জুন মাস। একটা ছাতা না কিনলেই নয়। লাল ছাতাটা পছন্দ হলো খুব। ভদ্রলোক দাম চাইলেন ৯৫০ টাকা। বললাম, আমি স্টুডেন্ট, এতো দাম দিয়ে ছাতা কিনতে পারবো না। ৭০০ টাকায় দিলে আমি নিবো।
ওকে, ডিয়ার স্টুডেন্ট। তোমার জন্য ৭০০ টাকাই যথেষ্ট। আজকের দিনটা তোমার জন্য ‘লাকি ডে’। ছাতাটা হাতে পেয়ে আমারও তাই মনে হলো। কী কিউট একটা ছাতা!
ছাতা মাথায় দোকান থেকে বের হয়ে গেলাম।  বৃষ্টি পড়ছে। লাল ছাতার ভিতর দিয়ে বৃষ্টির ফোটাগুলোকেও রঙিন মনে হচ্ছে।
একটা পিঠার দোকানে ঢুকলাম। শান্ত-আমার ছোট ভাই, বৃষ্টির দিনে পিঠা খেতে খুব পছন্দ করে। দরজার কিনারে ভেজা ছাতাটা রেখে পিঠা দেখতে লাগলাম। দোকানটা নিরব।  কাস্টমার নেই তেমন। একটি মাত্র মেয়ে বের হয়ে যাচ্ছে। আমি ছোট ছোট চারটা পিঠা কিনলাম। বিল পে করে বের হতে যাবো কিন্তু আমার ছাতা! লাল ছাতা!! আমার লাকি ছাতা!!!
সেখানে বরং একটা কালো, পুরনো ছাতা পড়ে আছে। কিনারা দিয়ে আছে বিশ্রী একটা হলুদ বর্ডার।
কি আর করা! সেটা নিয়েই বের হলাম। আহ!আমার লাকি ডে!!
বৃষ্টি বিধৌত পিচ রাস্তায় হাঁটছি। তেমন লোকজন নেই রাস্তায়। বেলা শেষ দুপুর। হঠাৎ পেছন থেকে কেউ একজন ডাক দিল, লায়লা!হাই!
একজন যুবক। তার মুখে হাসি।
কিন্তু আমি তাকে  চিনতে  পারলাম না। তাই কোনো রেসপন্স না করে দ্রুত হাঁটতে লাগলাম।
সে দৌঁড়ে সামনে চলে আসল এবং অনুনয়ের সুরে বলল ‘আমি খুবই দুঃখিত লায়লা। আমার দেরি হয়ে গেছে।’
আমি রাগের স্বরে বললাম, ‘আমি লায়লা নই, আমি জারা। দয়া করে রাস্তা ছাড়ুন।’
সে যথেষ্ট অবাক হলো। বলল, ‘সে কি! এটা কিভাবে সম্ভব? হলুদ বর্ডারের কালো ছাতা, কালো পোশাক পরা তো লায়লা হওয়ার কথা।’
বললাম তো আমি জারা, আরেকটু ঝাঁঝালো কণ্ঠে উত্তর দিলাম আমি।
‘প্লিজ, রাগ করবেন না, আমি লায়লার সাথে এই প্রথম মিট করতে এসেছিলাম এবং আমাদের একসাথে কফি খাওয়ার কথা ছিল। আমার বন্ধু আমাকে তার একটা ছবি পাঠিয়েছিল। হলুদ বর্ডারের কালো ছাতা ও কালো পোশাক পরা।কিন্তু আমি ঠিক সময়মতো আসতে পারি নি।’
মনে মনে বললাম, ‘একটা চোরনীর সাথে দেখা করতে এসেছেন আপনি।’
ছেলেটা ঘড়ি দেখল। তারপর বলল, ‘তিনটা বাজে, লায়লার এখন কোচিং-এ থাকার কথা।আমি দেরি করে ফেলেছি। আজ আর তার সাথে  দেখা করা সম্ভব না। চলুন না আমরা একসাথে কফি খাই?’
সে আকস্মিক প্রস্তাব করে বসল।
কয়েক সেকেন্ড চিন্তা করে বললাম, ওকে।
নিকটস্থ কফিশপে আমরা ধুমায়িত কফি খেতে খেতে কথা বললাম, হাসলাম এবং কথা বললাম।
সে একজন ‘ল’ এর ছাত্র।
‘আমি একজন বিজ্ঞানের স্টুডেন্ট’, আমি উত্তর দিলাম।
ঘড়ি দেখে আঁতকে উঠলাম আমি। সর্বনাশ! সন্ধ্যা হয়ে গিয়েছে, আমাকে এক্ষুনি যেতে হবে।
আমরা উঠে পড়লাম। সে বলল, শুভ সন্ধ্যা।
দুই মিনিট হেঁটে রাস্তা পার হতে গিয়ে একটা লাল ছাতার দিকে নজর গেল আমার। সন্ধ্যার আলো-আঁধারিতে লাল ছাতাটা চকচক করছে।
হ্যাঁ, এটাতো আমার ছাতা! এই তাহলে লায়লা?
আমি লায়লার সামনে চলে এসেছি। সে আমাকে দেখে অথবা তার নিজের ছাতা দেখেই হয়তো চিনে ফেলল এবং খুবই বিব্রতবোধ করতে লাগল। কিন্তু আমি হাসি মুখে তার দিকে এগিয়ে গেলাম। এবং বললাম ‘এই লাল ছাতাটি তোমার আর এই হলুদ বর্ডারের কালো ছাতাটিই আমার। কারণ এটাই আমার লাকি ছাতা আর আজকে আমার লাকি ডে।’
আমি বাসার দিকে হাঁটা দিলাম। লায়লা নিশ্চয়ই হতভম্ব হয়ে তাকিয়ে আছে আমার দিকে।
একবার কি ঘুরে তাকাবো তার দিকে?
না থাক…
অনুবাদক:- ফেরদাউস হাসান
শিক্ষার্থী, আরবি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial