ঢাকাশনিবার , ২১ অক্টোবর ২০২৩
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

মক্তব; হারাতে বসা মুসলিম ঐতিহ্য

ইমরান উদ্দিন
অক্টোবর ২১, ২০২৩ ৪:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

মক্তব! মুসলিম শিশুদের বিকশিত হওয়ার প্রথম ধাপ। একজন শিশু মক্তব থেকে শিখে আলিফ, বা, তা, ছা, কিংবা আলিফেতে আল্লাহ, বা’তে বায়তুল্লাহ। এভাবে সে নূরানী কায়েদার গন্ডি পেরিয়ে আমপারা শেখে, তারপর ধাপে ধাপে পবিত্র কুরআন শেখে। মুসলিম শিশুরা মক্তব থেকেই শিক্ষার প্রথম ধাপ শুরু করে । মক্তব থেকেই কুরআন সহীহ শুদ্ধভাবে শেখে। শিশু ইসলামী মননে বিকশিত হওয়ার প্রথম ধাপ হচ্ছে মক্তব।
মক্তবের যাত্রা প্রাচীন আমল থেকে শুরু হয়েছে। বড় বড় মুসলিম মনীষাগণ মক্তব থেকেই প্রথম শিক্ষা লাভ করেছেন। এ উপমহাদেশে সিন্ধু বিজয়ের পর মুসলিম বিজেতারা মুসলমানদের শিক্ষার জন্য মক্তব ও মাদরাসা চালু হয়। বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এ অঞ্চলে বড় বড় দরবেশ, সূফী, জ্ঞানী, সাধকগণ এসে ইসলামের বাণী প্রচার করে গেছেন। তারা প্রতিষ্ঠা করে গেছেন অসংখ্য মসজিদ, মাদরাসা, মক্তব, হেফজখানা। আস্তে আস্তে মুসলমানরা পুরো উপমহাদেশে ছড়িয়ে যায়। ইসলামের বাহকগণ যেখানে গেছেন সেখানেই তারা গড়ে তুলেছেন প্রতিষ্ঠান।
একটা শিশু মক্তব থেকে তার জীবনের সবক পেয়ে যায়। সে শুধু কুরআন শিখে তা নয়, মক্তব থেকে শিখে অযু ভঙ্গের কারণ, গোসলের ফরজ, অযুর ফরজ, গোসল ফরজ হওয়ার কারণ, তায়াম্মুম এর নিয়মাবলি। এইসব বিষয় মানুষের সারাজীবন দরকার। যদি সে পবিত্রতা অর্জন করতে চাই। এছাড়াও দলবদ্ধভাবে কালিমায়ে তাইয়্যেবা, শাহাদাত, তাওহিদ,মুজমাল,মুফাচ্ছল শেখে। যেগুলোকে আমরা পাঁচ কালেমা বলে থাকি। এগুলো বড় বড় শব্দ করে করে শিখানো হয়। ফলে শিশুদের মনে এমনভাবে গেঁথে যায়। যা সারাজীবনের হাতেখড়ি হয়।

ইসলামের পাঁচ স্তম্ভের মধ্যে নামাজ অন্যতম। নামাজের ফরজ, ওয়াজিব কিভাবে পালন করা হয়। কোন কোন কাজে নামাজ ভঙ্গ হয়। কোন কোন কাজে মাকরূহ হয়ে যায়। নামাজে কি কি দোয়া পড়তে হবে। কোথায় কোন দোয়া পড়তে হবে। সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে সবাইকে নামাজ শেখায় মক্তবে। তেমনিভাবে ওয়াশরুমে যাওয়ার দোয়া, মসজিদে যাওয়ার দোয়া থেকে শুরু করে যাবতীয় সবরকমে দোয়া মক্তবেই শিখানো হতো।
কিন্তু বিংশ শতাব্দীতে এসে কেমন যেনো এই যাত্রা স্তিমিত হয়ে যাচ্ছে। প্রযুক্তি ব্যাপক উৎকর্ষতার কারণে হারিয়ে যাচ্ছে মক্তব ব্যবস্থা। একসময় গ্রাম অঞ্চলে মায়েরা ভোরে উঠে ফজর শেষে সুললিত ধ্বনিতে কুরআন তিলাওয়াত করতো। সন্তানদের মক্তবে পাঠানোর ব্যবস্থা করতো। কিন্তু প্রযুক্তি ব্যাপকতায় আজ সেই ঐতিহ্য হারিয়ে যেতে বসেছে। ফলে বর্তমানে অধিকাংশ মুসলিম সন্তান কুরআন বিমুখ হয়ে যাচ্ছে। সহীহ শুদ্ধভাবে কুরআন পড়তে না জানার কারণে তারা কুরআনের প্রতি ভালোবাসা হারিয়ে ফেলেছে।

কালের বিবর্তন। মানুষের হাতে প্রযুক্তির উৎকর্ষতা। প্রযুক্তির সহজলভ্যতার ফলে আজ ইসলামের সেই সোনালী অধ্যায় হারিয়ে যেতে বসেছে। মক্তবগুলো আস্তে আস্তে শূন্য হয়ে যাচ্ছে। আগেকার মায়েরা ফজর নামাজ পড়ে সন্তানদের মক্তবে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে পড়তো। বর্তমানে সেটা হারিয়ে গেছে। এখন রাত গভীরে ঘুমানোর কারণে ফজরে অবচেতন মনে ঘুমিয়ে থাকে। যারফলে, মুসলিম শিশুরা আগের সেই ঐতিহ্যের ছোঁয়া পাচ্ছেনা।

শহরে বিভিন্ন স্কুল,কিন্ডারগার্টেনসহ নানান শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। যেখানে শিশুদের ক্লাস শুরু হয় খুব সকালে। এখন একজন কোমলমতি শিশুর পক্ষে একসাথে দুইটা চালিয়ে যাওয়া অসম্ভব হয়ে যায়। বাধ্য হয়ে শিশুদের মক্তবের পরিবর্তে স্কুলে যাওয়াকে গুরুত্ব বেশি দিতে হয়। এরফলে অধিকাংশ জায়গায় হারিয়ে গেছে শত শত বছরের মুসলিম ঐতিহ্যের বাহক মক্তব।
বাংলাদেশে মক্তব শিক্ষায় অনেকে অবদান রেখেছেন। বর্তমানেও এই মুসলিম ঐতিহ্যকে ধরে রাখার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য ধরা যায় “মক্তব চ্যারিটি ফান্ড “। যেটা সার্কেল একাডেমির পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে সারাদেশে বিস্তৃত রয়েছে সার্কেল একাডেমির কার্যক্রম। তারা অনলাইন এবং অফলাইন দুইটার মাধ্যমে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এরকম স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাধ্যমে মুসলিম শিশুদের বিকশিত হওয়ার সুযোগ করে দেওয়া সত্যি প্রশংসনীয় কাজ। যারা মক্তব শিক্ষা নিয়ে কাজ করে তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করে দেশের প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় ছড়িয়ে দেওয়া প্রয়োজন। অন্যথায় খুব অল্প সময়ের মধ্যে মক্তব হারিয়ে যাবে শত শত বছরের এই ঐতিহ্য!

ইমরান উদ্দিন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যাল
আরবী বিভাগ
ইমেইল- emranuddin491@gmail.com

Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial