ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৯ অক্টোবর ২০২৩
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

কোথায় আমাদের নিরাপদ সড়ক?

মৃধা প্রকাশনী
অক্টোবর ১৯, ২০২৩ ৫:১৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

প্রতি বছর ২২শে অক্টোবর পালিত হয় জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস।
“নিরাপদ সড়ক” কথাটি শুনলেই আতংক নিয়ে মনে পড়ে আমার প্রিয় জন্মভূমি শরিয়তপুরের কথা। শরিয়তপুরবাসীর মনে একটা প্রশ্নই ঘুরপাক খায় কোথায় আমাদের নিরাপদ সড়ক? আদতে শরিয়তপুরবাসী জানেই না নিরাপদ সড়ক বলতে কি বোঝায়! পদ্মাসেতু হওয়ার পরে দক্ষিণবঙ্গের সড়ক পথ বদলে গেলেও জাজিরা টু শরিয়তপুর সদর সড়কটি রয়ে গেছে বেহাল দশায়। ছোট-খাটো এক্সিডেন্ট থেকে শুরু করে বাস খাদে পড়ে যাওয়ার মতো মর্মান্তিক ঘটনা শরিয়তপুরবাসীর জন্য এখন হয়ে গেছে নিত্য-নৈমিত্তিক ব্যাপার। প্রায় প্রতিদিনই প্রিয়জনহারা হচ্ছে কোনো না কোনো পরিবার। শরিয়তপুর সদর ও এর আসেপাশের উপজেলাগুলোর সাধারণ জনগণ থেকে শুরু করে ছাত্র-ছাত্রী,কর্মজীবী মানুষ সবারই প্রতিনিয়ত পোহাতে হচ্ছে এক অসীম ভোগান্তি। প্রতিদিনই তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঘর থেকে বের হতে হচ্ছে নিজ নিজ গন্তব্যের উদ্দেশ্যে। তাদের সবার কাছেই অজানা এই ভোগান্তির শেষ কোথায়। আমরা সবাই জানি যে ফোর-লেন সড়কের কাজ হচ্ছে শরিয়তপুরে। কিন্তু ঠিক কোন গতিতে হচ্ছে তা কেবল শরিয়তপুরবাসীরাই জানে। কিন্তু তারা জানে না ঠিক আর কত প্রাণ গেলে ভোগান্তিহীন,নিরাপদভাবে তারা যাতায়াত করতে পারবে এই সড়কে।শরিয়তপুরের ফোর-লেন সড়ক তাদের কাছে স্বান্তনা মাত্র।
জাজিরা কিংবা অন্য উপজেলার সাধারণ মানুষ যাদের ঢাকায় গিয়ে উন্নত চিকিৎসা করানোর মতো সামর্থ নেই তাদের আর কোনো উপায় না পেয়ে শরিয়তপুর সদরেই যেতে হয় ভালো চিকিৎসার জন্য। কিন্তু ভালো চিকিৎসা গ্রহণ করতে গিয়ে পথিমধ্যেই প্রাণ যায় অনেকের শুধু মাত্র অস্বাভাবিক সরু এবং উঁচুনিচু এই সড়কের জন্য। জাজিরা টু শরিয়তপুর সদর সড়কে যেখানে একজন সুস্থ মানুষই যাতায়াতের ফলে অসুস্থ হয়ে যায় সেখানে একজন অসুস্থ রোগীর ভোগান্তির কথা না-হয় নাই বললাম।

সম্প্রতি গত ১০ অক্টোবর চালু হয়েছে পদ্মা রেলসেতু। কিন্তু দুঃখের বিষয় এখানেও বঞ্চিত করা হয়েছে শরিয়তপুরবাসীদের।শরিয়তপুরের কোল ঘেঁষে রেলপথ ঠিকই গিয়েছে কিন্তু তা শরিয়তপুরবাসীর জন্য না।ব্যাপারটা শরিয়তপুরবাসীর জন্য হয়তো ঠিক আলোর ফোয়ারা দেখিয়ে অন্ধকারে নিমগ্ন রাখার মতোই।তাই পদ্মার রেলসেতু উদ্বোধনে সবাই খুশির জোয়ারে ভাসলেও শরিয়তপুর বাসীর অবস্থা রয়ে গিয়েছে ঠিক আগেরই মতো।

আমাদের শরিয়তপুর বাসীদের একটাই অনুরোধ প্রয়োজনে কর্মীর সংখ্যা আরও বাড়ানো হোক তবুও অনতিবিলম্বে ফোর-লেন সড়কের কাজটা শেষ করা হোক, সেই সাথে শরীয়তপুরেরও দেওয়া হোক রেল সংযোগ।
আমরা নিরাপদ সড়ক চাই।ভোগান্তিহীনভাবে একটু স্বস্তিতে যাতায়াত করতে চাই।

তাসমিনা আক্তার আলো
সংস্কৃত বিভাগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
ইমেইল: tasminaalo97@gmail.com
সদস্য,বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা

Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial