ঢাকাবুধবার , ১৮ অক্টোবর ২০২৩
  • অন্যান্য
  1. আইন
  2. ইতিহাস
  3. ইসলামী সঙ্গীতের লিরিক্স
  4. কবিতা
  5. কিংবদন্তী কবিদের কবিতা
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প
  9. চিঠিপত্র
  10. জনপ্রিয় বাংলা গানের লিরিক্স
  11. তারুণ্যের কথা
  12. ধর্ম
  13. প্রবন্ধ
  14. প্রযুক্তি
  15. ফিচার

ইনফ্লুয়েন্সার মহামারি

মৃধা প্রকাশনী
অক্টোবর ১৮, ২০২৩ ২:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বিশেষজ্ঞদের মতে, পৃথিবীতে প্রতি একশত (১০০) বছর পর পর মহামারির আবির্ভাব ঘটে৷ যেমন : ২০২০ এ এসেছিল করোনা প্রাণঘাতি মহামারি৷ কিন্তু এই করোনা মহামারি চলে গেলেও এখন দেখা দিয়েছে ইনফ্লুন্সার মহামারি যা দিন দিন গ্রাস করে চলছে কিশোর-কিশোরী ও তরুণ-তরুণীদের৷ এই ইনফ্লুন্সারদের আগমন ঘটে ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং এর আবির্ভাবের মধ্য দিয়ে৷ ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং হচ্ছে এমন একটি মার্কেটিং পদ্ধতি যেখানে সোশ্যাল মিডিয়ার জনপ্রিয় ও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের মাধ্যমে পণ্য বা সেবার প্রচার-প্রচারণা করা হয়। এ মার্কেটিং পদ্ধতির মূল লক্ষ্য হচ্ছে ইনফ্লুয়েন্সারদের মাধ্যমে গ্রাহকদের পণ্য বা সেবার প্রতি আকৃষ্ট করে পণ্যের বিক্রি বৃদ্ধি করা।আর এই জনপ্রিয়তা পেতে আর সিনেমা বা নাটক করতে হয় না। এখন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে জনপ্রিয় হয়ে উঠা যায়।

 

বর্তমানে ইউটিউব, ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামে লক্ষ লক্ষ জনপ্রিয় মুখ রয়েছে। আজ তারা জনপ্রিয় শুধুমাত্র সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের সৃজনশীল/অসৃজনশীল কাজের জন্য। আর তাদের আয় কোনো অভিনেত্রী বা অভিনেতার থেকে কম নয়। বরং কিছু ক্ষেত্রে কয়েকগুণ বেশি আয় করে। এছাড়াও তারা ফ্রিতে দামি দামি উপহার সামগ্রী পেয়ে থাকেন। তাদের জীবনযাপন কোনো অংশে তারকাদের থেকে কম নয়। আর এই চাকচিক্য দেখে এবং টাকা উপার্জনের সহজ উপায় দেখে তরুণ সমাজ সোশ্যাল মিডিয়ায় অধিক ধাবিত হচ্ছে। জনপ্রিয়তা অর্জনে মরিয়া হয়ে উঠেছে। কে কত বেশি নিজের অনুসারি অর্জন করতে পারে সে প্রতিযোগিতায় নেমে নিজেকে নিয়ে ব্যাস্ত হয়ে পরেছে আজকের কিশোর কিশোরী, তরুণ প্রজন্ম। নিজেকে আবেদনময়ী করে সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখাচ্ছে। জনপ্রিয়তা অর্জনে অনৈতিক পথ বেছে নিচ্ছে। পড়ালেখা থেকে অধিক সময় ব্যয় করছে মোবাইল ফোনে। অনেক মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানেরা ডিএসএলআর ক্যামেরা, আইফোন এর মতো দামি ডিভাইসের জন্য বাবা-মা কে চাপ দিচ্ছে৷ নিরুপায় হয়ে নিজের কষ্টে জমানো অর্থ অথবা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ধার করে তারা সন্তানদের এইসকল ডিভাইস কিনে দিচ্ছেন।

 

তাছাড়াও পশ্চিমা অপসংস্কৃতি জেকে বসেছে উঠতি বয়সি ছেলেমেয়েদের মাঝে। সকল বাবা-মায়ের ই সপ্ন থাকে তাদের সন্তান ভালোভাবে পড়াশোনা করবে, ভালো মানুষ হবে। কেবল বাবা-মা ই নয় সমাজ ও রাষ্ট্রের উন্নতির জন্য সুশিক্ষার প্রয়োজন আছে, না শুধু ইনফ্লুয়েন্সার হয়ে লাখপতি হয়ে যাওয়া, জনপ্রিয় হয়ে যাওয়া। এই পরিস্থিতি বাড়তে থাকলে সমাজের নানান গুরুত্বপূর্ণ স্থান গুলোতে একসময় অযোগ্য ব্যক্তিদের আনাগোনা দেখা যাবে, যা কখনোই উন্নত এবং মানসম্মত জাতি গড়তে পারবেনা৷ করোনা মহামারি যেমন ভ্যাক্সিনেশনের মাধ্যমে নির্মূল করা হয়েছে৷ তেমনি এই ইনফ্লুয়েন্সার মহামারির অতি দ্রুত ভ্যাক্সিনেশনের প্রয়োজন৷ আর এই ভ্যাক্সিন তৈরি করতে হবে সচেতন গোষ্ঠীর। সেইসকল প্রতিষ্ঠানের যারা ইনফ্লুয়েন্সিং মার্কেটিং এর কর্ণধার৷ এই ক্ষেত্র টিতে সুযোগ সুবিধা, ভোগ বিলাসিতার সুযোগ কমিয়ে আনতে হবে। তা না হলে পরবর্তি প্রজন্ম, পরবর্তি গুরুত্বপূর্ণ পদ গুলো হবে অযোগ্যের।

 

অরবি মাহমুদ রিন্তী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

orabirinti@gmail.com 01954855313

Please follow and like us:

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial